|

মন্ত্রীদের পদত্যাগ আলোচনা করে চূড়ান্ত করা হবে : রওশন এরশাদ

স্টাফ রিপোটার, ০৯ এপ্রিল, শনিবার,

জাতীয় পার্টির মন্ত্রীদের পদত্যাগের বিষয়টি দলীয়ভাবে আলোচনা করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য বেগম রওশন এরশাদ এমপি। তিনি বলেছেন, সরকার ও বিরোধী দল একমত না হলে দেশে উন্নয়ন সম্ভব নয়, এগিয়ে যাওয়াও যাবে না।

শনিবার দুপুরে ময়মনসিংহ সদর উপজেলার অম্বিকাগঞ্জ মহাবিদ্যালয়ের নবনির্মিত দ্বি-তল আইসিটি ভবন ও পরানগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ ভবন উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ময়মনসিংহকে বিভাগে উন্নীত করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। এবছরই বিভাগ ঘোষণার জন্য আমরা চেষ্টা চালাচ্ছি।

অম্বিকাগঞ্জ মহাবিদ্যালয়ের নবনির্মিত দ্বি-তল আইসিটি ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদেরকে জ্ঞান অর্জনের পরামর্শ দিয়ে রওশন এরশাদ বলেন, শিক্ষিত মানুষ হচ্ছে আলোকিত মানুষ । শিক্ষা ছাড়া মনের আলো প্রজ্বলিত হয় না। শিক্ষা ছাড়া কোনো জাতি উন্নতিও করতে পারে না ।

তিনি আরো বলেন, দেশের বিদ্যমান শিক্ষা ব্যবস্থার বাইরেও আমাদের চিন্তা করতে হবে । প্রতিবছর হাজার হাজার শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ পাচ্ছে কিন্তু তারা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি তো দুরের কথা কোয়ালিফাই করছে না। এর কারনটা কি? মেধা কোথায়? আমি তো মেধা দেখতে পাচ্ছি না। এটা নিয়ে কেউ ভাবছেনা। এই সমস্যা খতিয়ে দেখতে হবে, সমস্যার সমাধান করতে হবে ।

তিনি বলেন, সত্যিকারের শিক্ষা পাইলে জ্ঞান অর্জন করতে পারত। তাহলে অবশ্যই বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষায় পাশ করতো ।

এসময় ময়মনসিংহ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আ ন ম ফয়জুল হক, জাতীয় পার্টির জেলঅ যুগ্ম-সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আশরাফুল ইসলামসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

পরে বেগম রওশন এরশাদ পরানগঞ্জ ২০ শয্যার হাসপাতাল পরিদর্শন করে চরাঞ্চলবাসী চিকিৎসা সেবার খোজ খবর নেন এবং হাসপাতালটিকে ২০ থেকে ৩০ শয্যার হাসপাতালে উন্নীত করে নানা সমস্যা নিরসনে উদ্যেগ গ্রহণ করবেন বলে চরাঞ্চলবাসীকে আশ্বস্ত করেন।

এরপর তিনি পরানগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে আয়োজিত জাতীয় পার্টির এক কর্মী সমাবেশে যোগদান করেন। এসময় জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা বেগম রওশন এরশাদকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

 

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৬:৫০ অপরাহ্ণ | মে ০৯, ২০১৫