|

ফুলপুরে বাম্পার ফলন হলেও কৃষকের মুখে হাসি নেই

 

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি :
ফুলপুর উপজেলায় ধানের বাম্পার ফলন হলেও দাম কম থাকায় কৃষকের মুখে হাসি নেই। এলাকায় বোর ধান কর্তন প্রায় শেষ পর্যায়ে এসে দাড়িয়েছে। বর্তমানে বাজারে প্রতি মন ধানের দাম রয়েছে মোটা ৪৭০ ও চিকন ৫৭০ টাকা পর্যন-। একজন শ্রমিকের দৈনিক মজুরি রয়েছে ৪শ থেকে ৫শ টাকা। শ্রমের মজুরি ও মহাজনের দেনা পরিশোধ করতে কম দামেই কৃষকের ধান বিক্রি করতে হচ্ছে। ফলে লাভের মুখ দেখতে পাচ্ছেন না চাষীরা।
উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ মফিদুল ইসলাম জানান, এ বছর ৪৪ হাজার ৬৫০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ করা হয়েছে। বেশির ভাগ জমিতে আবাদ হয়েছে হাইব্রিড ও উফশী জাতের ধান। সবকিছু ঠিক থাকায় এলাকায় ধানের বাম্পার ফলনও হয়েছে। ফতেপুর গ্রামের কৃষক নুরুল ইসলাম জানান, ১০ শতাংশ জমির বোর ধান আবাদে খরচ হয় প্রায় ৩ হাজার টাকা। বর্তমান বাজার দরে উৎপাদিত ধান বিক্রি করে খরচই উঠছেনা। দিউ গ্রামের আব্দুল মন্নাফ জানান, বর্তমান বাজারে অন্যান্য সব জিনিসের দাম বেশি থাকলেও শুধু মাত্র কৃষকের কষ্টার্জিত ধানের দামই কম আছে। ফলে বোর আবাদে ক্ষতিগ্রস’ হয়ে তারা ধান চাষে নিরুৎসাহিত হচ্ছেন। পুরাপুটিয়া গ্রামের আব্দুল মন্নাফ জানান একরে প্রায় ৩০ হাজার টাকা খরচ করে এর সমপরিমান টাকার ধান পেলাম। এতে লাভ তো দুরের কথা নিজেরা যে সারা মৌসুম পরিশ্রম করলাম তার পারিশ্রমিকও পেলাম না।
এ ব্যাপারে রাইস মিল মালিক মোঃ মোসলেম উদ্দিন জানান, মিলারদের কাছে গত বছরের চাল মজুত থাকায় বাজারে এর প্রভাব পড়েছে। তবে সরকারী ভাবে ধান-চাল ক্রয় শুরু হলে দাম কিছুটা বাড়তে পারে।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৪:৪৪ অপরাহ্ণ | মে ০৬, ২০১৫