|

সবচেয়ে কাঙ্খিত সানি লিওন

 বিনোদন : সানি লিওনবলিউডের দাপুটে সব অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোন, ক্যাটরিনা কাইফ এমনকি প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে পেছনে ফেলে সবচেয়ে কাক্ষিত নারী এখন সানি লিওন। সমপ্রতি টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক ভোটাভুটিতে এমনটাই দেখা গেছে।
সমপ্রতি অনলাইন ভোটিংয়ের ফলাফলের ভিত্তিতে ২০১৪ সালের সবচেয়ে কাক্ষিত ৫০ জন নারীর নামের তালিকা প্রকাশ করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। অনলাইন ভোটিংয়ের ফলাফলে জমা পড়া ২০ লাখ ৩ হাজার ভোটের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভোট পেয়ে তালিকায় শীর্ষস্থান দখল করেছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত কানাডীয় মডেল, অভিনেত্রী ও সাবেক পর্নো তারকা সানি লিওন।
সদ্য প্রকাশিত কাক্ষিত নারীদের তালিকায় সানির পরেই রয়েছেন দীপিকা পাড়-কোন। আর তৃতীয় স্থান পেয়েছেন জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ। এরপর যথাক্রমে রয়েছেন ক্যাটরিনা কাইফ, শ্রিয়া সরণ, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, শ্রদ্ধা কাপুর, নার্গিস ফাকরি, আশা ভাট, লিসা হেইডন, সোনম কাপুর,কঙ্গনা রানাউত, চিত্রাঙ্গদা সিং, আলিয়া ভাটসহ অন্যরা। টালিউড অভিনেত্রী পাওলি দাম রয়েছেন ৪২ নম্বরে।
৫০ জনের নামের তালিকায় না থাকলেও, ‘সব সময়ের কাক্ষিত নারী’ হিসেবে উলেস্নখ করা হয়েছে ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও কারিনা কাপুর খানের নাম। ২০১৪ সালের সবচেয়ে কাক্ষিত নারী নির্বাচিত হওয়ার পর সানি লিওনের সাক্ষাৎকার নিয়েছে বোম্বে টাইমস।
কী কারণে আপনি সবার কাছে কাক্ষিত?
সানি: আমি আমার নিজের মতো করে পথচলায় বিশ্বাসী। সম্ভবত আমার জীবনযাপনের ধরন সবার পছন্দ।
এই খেতাব জেতার তাৎপর্য আপনার কাছে কতটা?
সানি: এটা আমরা কাছে খুবই সম্মানের। একদল মানুষ আছেন যাঁরা আমাকে এই জগতে দেখতে চান না। তাঁরা চান, আমি যেন তল্পিতল্পা গুছিয়ে চলে যাই। কিন’ আমি যে কোথাও যেতে চাই না বা যাচ্ছি না, তা এই খেতাব পাওয়ার মধ্য দিয়ে প্রমাণিত হয়েছে।
সানির কাছে সবচেয়ে কাঙ্খিত পুরম্নষ কে?
সানি: স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবারই আমার কাছে সবচেয়ে কাঙ্খিত পুরম্নষ। সবচেয়ে বড় কথা, সে বিশাল হৃদয়ের অধিকারী। আমার ব্যক্তিগত জীবন থেকে শুরম্ন করে কর্মড়্গেত্র পর্যনত্ম জীবনের প্রতিটি ড়্গেত্রে সে সমর্থন দিয়েছে। বলিউডে আমার কোনো পথপ্রদর্শক ছিল না, পরামর্শক ছিল না। আমার স্বামীই আমাকে বলিউডের ডামাডোলের মধ্যে কীভাবে চলতে হবে তা শিখিয়েছে।
বয়স হয়ে গেলে হয়তো এখনকার মতো আর কাঙিড়্গত থাকবেন না-এ নিয়ে কী ভয় হয়?
সানি: মোটেও না। বয়স বয়সের মতো বাড়বে। কিন’ আমি মনে করি, আমার খাদ্যাভ্যাস যদি ঠিক থাকে এবং নিয়মিত শরীরচর্চা চালিয়ে যাই তা হলে আর সবার চোখে না হোক, অনত্মত আমার স্বামীর কাছে চিরকাল কাড়্গিত থাকতে পারব।
এফএনএস

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:৫৭ অপরাহ্ণ | মে ০৫, ২০১৫