|

হত্যা মামলার রায় নেত্রকোনায় পাঁচজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

নেত্রকোনা প্রতিনিধি : নেত্রকোনার পূর্বধলায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে আবদুল আজিজকে হত্যার দায়ে ৫ জনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড, প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছর করে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তরা হচ্ছেন- পূর্বধলার পাবই গ্রামের আবদুল হামিদ(৪০), উজ্জল মিয়া(২৩) (পলাতক), হেলাল মিয়া (৪০) রব্বানী(৪৫) (পলাতক), রেহানা বেগম(৪৭)। ওই মামলায় রাশিদা বেগম(৩০) রওশনারা বেগম(২৮) ও নাদিয়া বেগমকে(৩০) এক বছর করে কারাদন্ড, প্রত্যেককে এক হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ মাসের কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। নেত্রকোনার অতিরিক্ত দায়রা জজ মো. আবদুল হামিদ গতকাল বুধবার এ রায় দেন।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, জেলার পূর্বধলার পাবই গ্রামের আবদুল আজিজের সাথে দীর্ঘদিন ধরে একই গ্রামের আবদুল হামিদ, উজ্জল মিয়াসহ অন্য আসামীদের জমি সংক্রান- বিরোধ চলছিল। এরই জের ধরে গত ২০০৫ সালে ৪ ফেব্রুয়ারী আবদুল হামিদ তার লোকজন নিয়ে বিরোধপূর্ন জমিতে কাজ করতে যায়। এ সময় আবদুল আজিজ বাধা দিলে আসামীরা তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। পরে গুরুত্বর আহত অবস’ায় প্রথমে ময়মনসিংহ ম্যাডিকেল কলেজ হাসপাতালে পরবর্তীতে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় তার স্ত্রী মোছাম্মাৎ জাহানারা বেগম বাদী হয়ে ৮জনকে আসামী করে পূর্বধলা থানায় হত্যা মামলা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তদনত্ম শেষে একই বছরের ২৬জুন আসামীদের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জসীট দাখিল করে। আদালত ৮ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহন শেষে অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় বিজ্ঞ বিচারক এ রায় প্রদান করেন। সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট আবদুল কাদির ভূইয়া ও আসামী পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মাহফুজুল হক ও অ্যাডভোকেট অশুক রায়।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:০৬ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ২৯, ২০১৫