ভূমিকম্পে আক্রান্তদের সহায়তায় গুগল ও ফেসবুকের বিশেষ সেবা

নেপালের ভূমিকম্পের শিকার মানুষকে প্রযুক্তিগতভাবে সহায়তা করতে এগিয়ে এসেছে প্রযুক্তি-জায়ান্ট গুগল ও ফেসবুক। এ ধরণের বিপর্যয়ে অনলাইন প্রযুক্তি যে ভালো কাজে ব্যবহার করা সম্ভব, তা-ই করে দেখিয়েছে বিশ্বসেরা এ দুই প্রতিষ্ঠান। ভূমিকম্পের শিকার মানুষদের খুঁজে পেতে ও জানাশোনা কারো সম্পর্কে তথ্য দিতে বিশেষ সেবা চালু করেছে গুগল। অপরদিকে দুর্গতদের অবস্থা সম্পর্কে সবাইকে অবহিত ও আশ্বস্ত করতে আরেকটি সেবা চালু করেছে ফেসবুক। গুগল পিপল ফাইন্ডার নামক সেবার মাধ্যমে যে কেউ বিপর্যয়ে নিখোঁজ পরিচিত কারো সম্পর্কে তথ্য পেতে অনুরোধ করতে পারেন। একই সঙ্গে এ বিপর্যয়ে আক্রান্ত কারো তথ্য ও ছবি জানা থাকলে সেসব শেয়ারও করতে পারেন। এতে করে উপকৃত হতে পারেন অন্য কেউ। কিছুটা ভিন্নধর্মী আরেক ফিচার এরপর চালু করেছে ফেসবুকও। নেপাল আর্থকুয়েক সেফটি চেক নামের ওই বিশেষ সেবার মাধ্যমে আক্রান্ত বন্ধুরা নিরাপদ আছেন কিনা, সেটা ব্যবহারকারীরা অন্য বন্ধুদের জানিয়ে আশ্বস্ত করতে পারেন। এছাড়া নিজে নিরাপদ আছেন কিনা, সেটিও বন্ধুদের জানিয়ে আশ্বস্ত করা সম্ভব। শুধুমাত্র ভূমিকম্পে আক্রান্ত দেশে অবস্থানরত ব্যবহারকারীরাই এ ব্যাপারে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে নোটিফিকেশন পেয়েছেন। বাংলাদেশের ব্যবহারকারীদের কাছেও এ সংক্রান্ত নোটিফিকেশন এসেছে। সেখানে জানতে চাওয়া হয়েছে, আপনি ভূমিকম্পে আক্রান্ত এলাকায় রয়েছেন কিনা? আপনি নিরাপদ আছেন কিনা? আপনার পরিচিত কেউ নিরাপদ আছে বলে আপনার জানা আছে কিনা? ফেসবুক ও গুগলের উভয় সেবাই মোবাইল কিংবা কম্পিউটারে ব্যবহারের উপযোগী। আপনার পরিচিত কেউ যদি দুর্ঘটনাস্থলে থেকে থাকে, কিন্তু তার কোনো খবর আপনি পাচ্ছেন না, সেক্ষেত্রে তার তথ্য চেয়ে পোস্ট করতে পারেন গুগল পিপল ফাইন্ডারে। আপনার পরিচিত কারো হালহকিকত সম্বন্ধে কেউ যদি আগে এখানে তথ্য বা ছবি পোস্ট করে রাখে, তাহলে পেয়েও যেতে পারেন খোঁজখবর। ভূমিকম্পের কবলে পড়ে নেপালে টেলিফোন ও মোবাইল যোগাযোগে ব্যাপক আকারে বিঘ্ন ঘটেছে। এছাড়া ইন্টারনেট সেবাও অত্যন্ত সীমিত হয়ে পড়ছে। এর ফলে অনেকেই প্রিয়জনের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না। সেক্ষত্রে গুগল পিপল ফাইন্ডার হতে পারে প্রিয়জনের খোঁজ পাবার উপকারী মাধ্যম। সেখানে আপনি যেমন পরিচিত কারো সম্পর্কে তথ্য চাইতে পারেন। একই সঙ্গে পারবেন, দুর্ঘটনার শিকার কারো সম্পর্কে তথ্য জানা থাকলে, তা শেয়ার করতে। অন্যদিকে ফেসবুকের সেবাটি কিছুটা সীমিত। এখানে আপনার জানাশোনা কেউ যদি ভুমিকম্প আক্রান্ত এলাকায় থাকেন এবং নিরাপদ থাকেন, তাহলে তাকে নিরাপদ ঘোষণা করে আপনি অন্যদের আশ্বস্ত করতে পারেন। এছাড়া আপনি নিজেও যদি ওই এলাকায় থাকেন, তাহলে সেফটি চেকের মাধ্যমে আপনার বন্ধু ও পরিবারের সদস্যদের আশ্বস্ত করতে পারেন যে, আপনিও আছেন বহাল তবিয়তে। এ ব্যাপারে নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে একটি পোস্ট দিয়েছেন ফেসবুকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ। তিনি লিখেছেন, নেপালের ভূমিকম্পে আক্রান্ত মানুষদের জন্য আমরা সেফটি চেক সেবা চালু করেছি। এটি খুবই সাধারণ একটি সেবা। এর মাধ্যমে আপনি বন্ধু ও পরিবারকে সহজেই জানাতে পারবেন যে, আপনি ঠিক আছেন। আপনি যদি ভূমিকম্পে আক্রান্ত এলাকায় থাকেন, তাহলে আপনি একটি নোটিফিকেশন পাবেন। সেখানে আপনাকে জিজ্ঞেস করা হবে, আপনি নিরাপদ আছেন কিনা। এছাড়া আপনার জানাশোনা অন্য কেউ নিরাপদ আছে কিনা, সেটিও নিশ্চিত করতে পারেন। যখন বিপর্যয় ঘটে, তখন মানুষ জানতে চায়, তাদের প্রিয়জন নিরাপদ আছে কিনা। এটা হচ্ছে সে মুহূর্ত, যখন যোগাযোগটা আসলেই বড় একটি ব্যাপার। এ ট্রাজেডিতে আক্রান্ত সকলের প্রতি আমার সমবেদনা।সুত্রঃমানবজমিন